নির্বাচনোত্তর সহিংসতা টংগীবাড়িতে রামদা ও জুইত্তা দিয়ে গুরুতর জখম করেছে সন্ত্রাসীরা॥ কলেজ পড়ুয়া শিক্ষার্থীসহ আহত-২

টংগীবাড়ি (মুন্সীগঞ্জ) সংবাদদাতা::

মুন্সীগঞ্জের টংগীবাড়ি উপজেলায় আব্দুল্লাহপুর ইউনিয়ন ৫নং ওয়ার্ডের দীঘিরপারে নির্বাচনোত্তর সহিংসতার ঘটনা ঘটেছে। নৌকার প্রার্থীর সমর্থক জাহাঙ্গীরকে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী রাশেদুন্নবী খোকনের সমর্থক মুরাদ শেখ (৪৫), কাউছার শেখ (৪০), বখতিয়ার শেখ (৩৮), পলাশ শেখ (৩২), আরিফ শেখ (৩৫) সর্বপিতা হাবিবুর রহমান খালেক শেখ ও ইউনুস মেম্বার রামদা ও জুইত্তা দিয়ে আঘাত করলে গরুতর জখম হয়। এই ঘটনায় কলেজ পড়ুয়া মেয়েসহ দুইজন আহত হয়েছে। মঙ্গলবার (৩০ নভেম্বর) সন্ধ্যায় টংগীবাড়ি উপজেলার আব্দুল্লাহপুরে এই ঘটনা ঘটে।

আহত জাহাঙ্গীরের চাচাত ভাই মহিউদ্দিন জানান, জাহাঙ্গীরের ভাতিজা মিরাজের শিশু মেয়েকে নিয়ে ঘুরতেছিল। পিছন থেকে এসে অতর্কিত হামলাকরে এই হামলাকারীরা। আমার ভাইকে তাদের পক্ষের প্রার্থীর নির্বাচন না করায় আমার চাচাত ভাইয়ের পায়ের মধ্যে জুইত্তা দিয়ে আঘাত করে এবং রামদা দিয়ে পায়ে কোপ দেয়।

আহত জাহাঙ্গীরের চাচাত ভাই মহিউদ্দিন আরো জানান, তার মেয়ে তৃষা আক্তার (১৭) হরগঙ্গা কলেজের এইচ এস সি দ্বিতীয় বর্ষে পড়ে। তার মেয়ে জাহাঙ্গীরকে বাঁচাতে গেলে তাকেও গলায় ওড়না পেচিয়ে ফাঁস লাগিয়ে ফেলে। এ সময় হাতে থাকা ধারালো অস্ত্র দিয়ে আঘাত করলে সেটা মেয়ের ডান চোখে আঘাত প্রাপ্ত হয়। প্রাথমিকভাবে আহত দুইজনকেই টংগীবাড়ী উপজেলা কম্পেøক্সে চিকিৎসা দেয়া হয়। পরবর্তীতে অবস্থার অবনতি হলে ঢাকা মেডিকেলের উদ্দেশ্যে রওয়া হয়েছে। ইতিপূর্বে মুরাদ গংরা হুমকি দিয়ে আসছিল নির্বাচনে জয় পরাজয় যাই হোক জাহাঙ্গীরকে মারবে এমন হুমকি দিয়ে আসছিল।

বাদী জাহাঙ্গীর অভিযোগ সূত্র থেকে জানা যায়, মঙ্গলবার সকাল ৮টার সময় সরকারি পুকুরে অবৈধভাবে মাছ ধরতেছিল মুরাদ শেখ (৪৫)। এই মাছ ধরার ভিডিও ধারণ করতেছিল জাহঙ্গীর। ভিডিও ধারনের বিষয়টি বুঝতে পেরে সকল ভাইরা অতর্কিত হামলা করে জাহাঙ্গীরের উপর। জাহাঙ্গীর বাদী হয়ে টংগীবাড়ি থানায় ৫জনকে আসামী করে একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন।

তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই সামাদ জানান, জাহাঙ্গীর ও তৃষা আহত হওয়ার ঘটনায় একটি লিখিত অভিযোগ পেয়েছি।

টংগীবাড়ি থানার অফিসার ইনচার্জ মোল্লা সোহেব আলী জানান, কাউছার শেখের লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। জাহঙ্গীর বাদী হয়ে কোন অভিযোগ করেনি।

Leave a Reply

Your email address will not be published.